Tuesday, March 12, 2013

হেফাজতে ইসলামী ও জামাতের মধ্যকার সম্পর্ক



চট্টগ্রাম গণজাগরণ মঞ্চকে হুমকি দেওয়া হেফাজতে ইসলামী ও জামাত শিবিরের মধ্যকার সম্পর্কটি জানতে নিচের লেখাটি অবশ্যই মনোযোগ দিয়ে পড়ুন…

হেফাজতে ইসলাম নাকি যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চায়, তাদের একমাত্র সমস্যা নাকি নাস্তিকরা লক্ষ্য করুণ, একটু লক্ষ্য করুণ যুদ্ধাপরাধীদের পুনর্বাসনে প্রচুর টাকা ঢালা একটি এনজিও হচ্ছে রাবেতা আল ইসলামী যার কান্ট্রি হেড ছিল জামাত নেতা রাজাকার মীর কাসেম আলী, রাবেতার অঙ্গ সংগঠন মাসিক আল-হক্ব পত্রিকা, এই পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান সম্পাদক এবং রাবেতা আলমে আল ইসলামীর বর্তমান বাংলাদেশ ব্যুরো প্রধান "আল্লামা সুলতান যওক নদভী"। আর এই "আল্লামা সুলতান যওক নদভী" হচ্ছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ-এর নায়েবে আমীর এবার বুঝেন, কি বিচারই না তারা চান ! ! !

প্রত্যেকটা লাইনের একাধিক রেফারেন্স দেয়া হল, যার প্রায় সবগুলো জামাত সমর্থিত পত্রিকার লিংক নিজের চোখে পরখ করে নিন দয়া করে

 ** পয়েন্ট নাম্বার একঃ “মীর কাসেম রাবেতা আল ইসলামীর কান্ট্রি হেড”

* "...ছাত্র শিবিরের প্রথম কেন্দ্রীয় সভাপতি হয় মীর কাশেম আলী। এরপর রোহিঙ্গা পুনর্বাসনের নামে “রাবেতা আল ইসলামী” গড়ে তুলে। কক্সবাজারে এই রাবেতার মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা আসে। “রাবেতা আল ইসলামী”র বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর পদে ছিল কাসেম আলী। কক্সবাজারে রোহিঙ্গা মুসলিম শরণার্থীদের সাহায্যের নামে আনা এই টাকায় রাবেতা হাসপাতালও করা হয়েছে। যেখানে ইসলামী জঙ্গিসহ রোহিঙ্গা ইসলামী জঙ্গীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হতো বলে অভিযোগ রয়েছে। রোহিঙ্গা জঙ্গিদেরকে দেশে প্রশিক্ষণ ও বিদেশে পাঠিয়েও প্রশিক্ষণ দেওয়ার ক্ষেত্রে মীর কাসেম আলী সহায়তা করেছে বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে। আর এই রাবেতার মাধ্যমে আসা কোটি কোটি টাকা দিয়ে জঙ্গিবাদে অর্থ সহায়তা এবং জামাতে ইসলামীকে অর্থনৈতিকভাবে শক্ত ভিতের ওপর দাঁড় করানোর জন্য মীর কাসেম আলী মুখ্য ভূমিকা পালন করেছে এমন তথ্য রয়েছে দেশের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার কাছেও। ....."

তথ্যসূত্র :

মুক্তিযুদ্ধ কোষ/৩য় খণ্ড (সম্পাদক : ড.মুনতাসীর মামুন)

*"..... সৌদি ও মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশগুলোর অর্থনৈতিক সাহায্যপুষ্ট ‘রাবেতা আল ইসলামী’ নামে একটি এনজিও বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর পদ লাভ করেন এই জামাত নেতা রাজাকার মীর কাসেম আলী। ......."

*এছাড়া গণ জাগরণ মঞ্চ থেকে "True History Of Liberation War 1971" এবং "স্লোগান’৭১"এর পক্ষ থেকে বিলিকৃত লিফলেটে “রাবেতা আল ইসলামী” এর অঙ্গ সংগঠন "রাবেতা-তাওহিদ ট্রাস্ট" কে জামায়াত ও শিবিরের সদস্য দ্বারা পরিচালিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে চিহ্নিত করে বর্জনের আহ্বান জানিনো হয়েছে।।

**
পয়েন্ট নাম্বার দুইঃ “রাবেতা আল ইসলামী এনজিও'র বিনিয়োগের একটা পত্রিকা মাসিক আল-হক্ব“
*
এবার লক্ষ্য করুণ
মাসিক আল হক্বের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান সম্পাদক,দারুল মা’আরিফ আল ইসলামিয়ার মহাপরিচালক ও রাবেতা আলমে আল ইসলামীর বাংলাদেশ ব্যুরো প্রধান আল্লামা সুলতান যওক নদভী

 সুত্রঃ

*দৈনিক ইনকিলাবঃ Click This Link

*দৈনিক নয়া দিগন্তঃ http://www.dailynayadiganta.com/new/?p=122600

*সাপ্তাহিক সোনার বাংলাঃ Click This Link

**
পয়েন্ট নাম্বার তিনঃ “মাসিক আল-হক্বের সম্পাদক এবং রাবেতা আলমে আল ইসলামীর বাংলাদেশ ব্যুরোর বর্তমান প্রধানই হেফাজতে ইসলামের নায়েবে আমীর”

*
এই আল্লামা সুলতান যওক নদভী হচ্ছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ-এর নায়েবে আমীর

সুত্রঃ

*দৈনিক সংগ্রামঃ Click This Link

*দৈনিক নয়া দিগন্তঃ Click This Link

এবার আপনারাই বলেন রাজাকার মীর কাসেমের উত্তরসুরী হেফাজতে ইসলাম কি জামাতের অঙ্গ কি না?
আরেকটি মুখোশ খুলে গেল, জামাত শিবিরকে চিনুন রুখে দাঁড়ান…

জয় বাঙলা, জয় বঙ্গবন্ধু।।


>>> একজন নিষ্ঠাবান দেশপ্রেমিক।। 

0 comments:

Post a Comment