Tuesday, December 18, 2012

জাতি বড়ই অভাগারে বিশ্বজিৎ দা। আমরাই তোকে মারলাম। বিচার ও করতে পারব বলে মনে হয় না। মাফ করে দিস।



No one killed Bishwajit...

"তার শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়
নি ময়না তদন্তে..."

এটা আজকে একটি দৈনিকের খবর। মানুষটাকে রীতিমত কোপানো হইল, সেই ভিডিও টেলিভিশন, ফেসবুকে দেখে মানুষ স্তম্ভিত হল, হত্যাকারীদের ছবিও প্রকাশ পেল। কিছুই হল না।
BAL(Bangladesh Awami League) এর নেতারা কইলো এর সাথে তাদের কেউ জড়িত না। কে জড়িত সেইটা তো কেউ জানতে চায় নাই। মানুষ চায় জড়িতদের বিচার। যদি অন্য কেউ জড়িত হয় তাইলে সেইটার বিচার করেন।

ময়না তদন্তে আসলো যে "বুকের বাম পাশে ৩ সেন্টিমিটার গভীরতার একটা ইনজুরি আছে,এই ইনজুরিতে axillary artery ছিঁড়ে যায়,ফলে প্রচুর ব্লিডিং হয় এবং circulatory failure হয়ে মারা যায় বিশ্বজিৎ।" অথচ এইটা গোপন করে নির্লজ্জের মত
হলুদ সাংবাদিকতার নিকৃষ্টতম রূপ দেখিয়ে প্রকাশ করা হল "বিশ্বজিতের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায় নি।"

মুল ঘটনা হইল বিশ্বজিৎ অতি দুর্বলচিত্তের মানুষ ছিল। ককটেল আর স্লোগান এর আওয়াজ আর লাঠি সোটা নিয়ে কয়েকজনকে এগিয়ে আসতে দেখে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যায় সে। আর ভিডিও তে যেইটা দেখানো হয়েছে ওইটা আসলে মারামারি না। বিশ্বজিতের বন্ধুরা অনেকদিন পর ওকে পেয়ে রঙ ছিটিয়ে হোলি খেলছিল। সেইখানে ওই শোরগোল আর
আনন্দের আতিশয্যে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে যায় তার।

জাতি বড়ই অভাগারে বিশ্বজিৎ দা। আমরাই তোকে মারলাম। বিচার ও করতে পারলাম না। মাফ করে দিস।



 

0 comments:

Post a Comment